• মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৪৮ অপরাহ্ন
Channel Cox add

উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের হুমকিতে ঘর ছাড়া অসহায় নারী ছেনুয়ারা l ChannelCox.Com

সংবাদদাতা
আপডেট : শুক্রবার, ১৭ জুলাই, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদন :
উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নে রোহিঙ্গাদের হুমকিতে ভিটে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে স্হানীয় এক অসহায় নারী ছেনুয়ারা বেগমের পরিবার।

জানা যায়, কক্সবাজারের উখিয়ার উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের বাগঘোনা,শফিউল্লাহ কাটা রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১৬ এর রোহিঙ্গা দুস্কৃতকারীদের প্রতিনিয়ত প্রাণনাশের হুমকির কারণে স্হানীয় আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী তার পরিবারের জানমাল নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিনরাত পার করছে।ছেনুয়ারা বেগম রোহিঙ্গাদের ভয়ে পরিবার নিয়ে ঘরছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তিনি এই বিষয়ে দ্বিতীয় বারের মতো অভিযোগ পত্র নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরাঘুরি করছেন। ছেনুয়ারা এই বিষয়ে লক ডাউন এর আগে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ করাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকারুজ্জমান চৌধুরীর নির্দেশনায় ছেনুয়ারার বসত ভিটা হইতে ১৪ টি রোহিঙ্গা পরিবারকে উচ্ছেদ করা হলেও বাকী রোহিঙ্গাদের হামলায় গত ১৫ এপ্রিল মধ্যরাতে রোহিঙ্গারা পুলিশ পোশাক ও অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হইয়া আমার বাড়িতে হানা দিয়ে দরজা জানালা ভেঙে ফেলে। এবং হুমকি দিয়েছেন এই বসত ভিটা থেকে সরে না গেলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি প্রদর্শন করেন।

ছেনুয়ারা আরো জানায়,আমার ৩টি যুবতী মেয়ে আছে কয়েকমাস পূর্বে ১ টি যুবতী মেয়েকে রোহিঙ্গারা জোর পূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ে করে ফেলে। অবশিষ্ট ২ টি যুবতী মেয়ে যেকোন মুহূর্তে রোহিঙ্গারা তুলে নিয়ে যেতে পারে। বর্তমানে আমি পরিবার নিয়ে বিতাড়িত,রোহিঙ্গারা যেকোন মুহূর্তে আমার বা আমার পরিবার পরিজনের প্রাণহানীরমত ঘটনা ঘটাতে পারে।আমার পরিবারের জানমাল নিরাপত্তার স্বার্থে আমার বসত ভিটা হইতে ১৩ টি রোহিঙ্গা পরিবারকে দ্রুত অন্য স্থানে সরিয়ে নিয়ে আমাদেরকে রোহিঙ্গা নির্যাতন থেকে রক্ষা করার জন্য সবিনয়ে অনুরোধ করছি।

রোহিঙ্গা বিবাদীরা হইলো১/ ইয়াছিন আরফাত, ঘর নং৮১৭/২ সনজিদা,ঘ ৮৪৬, ছিদ্দিক আহমদ, ৮৪৭, ছকিনা খাতুন,ঘ ৮৪৬, ফয়েজ আহমেদ,ঘ, ৭৩৭,খুরশিদা বেগম,ঘ,৭৩৯, একরাম, ঘ,৮৮২, নুরুল আমিন, ঘ৮৪৩, ইয়াহাইয়া, ঘ,৭৮৭,দিল মোহাম্মদ, ঘ,৮৪৪ আবুল কাশেম, ঘ,১২, ছৈয়দুল ইসলাম, ঘ,১৩, জনৈক মহিলা সকলের সর্ব সাং শফিউল্লাহ কাটা ক্যাম্প ১৬।

ক্যাম্প-১৬ এর ক্যাম্পে এখনও নতুন ক্যাম্প ইন্চার্জ যোগদান না হওয়ার কারণে বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে উখিয়া থানার তদন্ত অফিসার ইনচার্জ নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন তদারকি করা হচ্ছে বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − thirteen =

আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ