• বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

হাইব্রিড ছাত্রলীগ নেতার কারনে উখিয়ার এক ত্যাগী আ’লীগ পরিবার ঘরছাড়া

ডেস্ক নিউজ
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১ এপ্রিল, ২০২১

কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়ন শ্রমিকলীগ সভাপতি শেখ রাসেলকে ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় আসামী করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার।

বৃহস্পতিবার (০১ এপ্রিল) দুপুরে উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন শেখ রাসেলের বড়ভাই শেখ সোহেল বলেন, এপিবিএন পুলিশের হাতে পালংখালী ইউনিয়নের শফিউল্লাহকাটা থেকে ১১জন সন্ত্রাসী ও অস্ত্র আটকের ঘটনায় আমার ছোটভাই শেখ রাসেলকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আসামি করা হয়েছে। যার নেপথ্যে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলি আহমদ জড়িত রয়েছে। আমার বাবা একজন দীর্ঘ ৪৫বছর আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলো এবং নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচন করায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আলী আহমদ ক্ষিপ্ত হয়ে আমার ছোটভাই শেখ রাসেল ও আমাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বার বার হয়রানি করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় গত ২৮ মার্চ আমার ছোটভাই শেখ রাসেলকে মিথ্যা মামলায় আসামী করা হয়েছে। এমনকি লকডাউনের শুরুতে আলি আহমদ আমার বাড়িতে আইনশৃংখলা বাহিনী পাঠিয়ে বাড়িতে লুটপাট করে উল্টো মিথ্যা মামলা দিয়েছে। ঐ মামলা থেকে আমার মতো পঙ্গু ব্যক্তিও বাঁচতে পারিনি।

এ মামলা থেকে আমার ভাইকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। আলি আহমদ বাহিনী আওয়ামীলীগের নাম বিক্রি করে আমার মতো আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতার ছেলেদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যা তথ্য দিয়ে আসামী করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন,আলি আহমদ বিভিন্নভাবে আমার পরিবারকে হয়রানি করে আসছে। এলাকার বিভিন্ন সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা প্রকাশ্যে নানা হুমকি ধমকি প্রদান করে আসছে। আবেগাপ্লুত হয়ে তিনি বলেন,আমার বাবা মৃত হাবিবুর রহমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও পালংখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ছিলো। ইতিপূর্বে আলি আহমদ বাহিনী পূর্ব শত্রুতার জেরে আমার বাড়ির পাশে ইয়াবা ও অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা চালিয়ে গেছে।

সম্প্রতি একটি ঘটনায় আমার ছোট ভাই শেখ রাসেলকে আরো একটি মিথ্যা মামলা দিয়েছে। অথচ আমার ভাই গত এক বছর যাবৎ এলাকার বাইরে রয়েছে। কিন্তু সে মামলার আসামী কিভাবে আমার প্রশ্ন। আমি বিএনপি-জামাত চার দলীয় জোট সরকারের আমলে ৪টি ষড়যন্ত্রমূলক মামলা ১২ বছর এলাকার বাইরে থাকতে হয়েছে। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতার আসার পর এলাকায় আসলে একের পর এক মিথ্যা মামলা দেওয়া শুরু করে আলি আহমদ৷ তার মিথ্যা মামলার কারনে আমার পিতা হাবিবুর রহমান টেনশনে মৃত্যু বরণ করেছে। আমি পঙ্গুত্ব অবস্থায় মৃত্যুর কাছাকাছি অবস্থান করছি। বঙ্গবন্ধুর আর্দশে অনুপ্রাণীত হয়ে আমার ছোট ভাইয়ের নাম রেখেছে শেখ রাসেল। কিন্তু হাইব্রিট আলি আহমদ ষড়যন্ত্রের আমার ভাইয়ের জীবন এবং আমার পরিবার তচনচ হয়ে গেছে। আমার উপযুক্ত ২টি বোনকে টাকার অভাবে বিবাহ দিতে পারছিনা। এসব কথা বলতে বলতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন শেখ সোহেল। পরিশেষে তিনি সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক মিথ্যা মামলা থেকে তার ভাই শেখ রাসেলকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান৷

SuperWebTricks Loading...

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − eleven =

আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ
error: Content is protected !!