ভয়ে আর চা খাই না, গলা শুকিয়ে গেলেও না : তাহেরী

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:১৪ PM, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ডেস্ক : ইউটিউব, ফেসবুকসহ নানা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচিত-সমালোচিত দাওয়াতে ঈমানী বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী। তিনি একটি ওয়াজ মাহফিলে জিকিরের সুরে বলেছিলেন, ‘বসেন বসেন বইসা যান’। মূলত এরপরই তাহেরী ব্যাপকভাবে আলোচনায় আসেন।

সবশেষ আরেকটি ওয়াজ মাহফিলে হাতে চায়ের কাপ নিয়ে তিনি বলেন, ‘কেউ কথা কইয়েন না, একটু চা খাব? খাই একটু…? আপনারা খাবেন? ঢেলে দেই? ঢেলে দেই…?’ তিনি ওই সময় বক্তব্যের মধ্যে অশ্লীল ভঙ্গিও করেন। এরপরই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিতে আসেন তাহেরী। তার বিরুদ্ধে মামলার আবেদনও হয়েছে। পরে অবশ্য আদালত তা খারিজ করে দিয়েছেন।

এসব বিষয় নিয়ে হবিগঞ্জের মাধবপুরে নোয়াপাড়া গ্রামে রায়হানীয়া দরবার শরীফে বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে এ কথা বলেছেন তিনি।

মুফতি মুহম্মদ গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী বলেন, ‘একটি ওয়াজ মাহফিলে ২ থেকে ৩ ঘণ্টা আমাকে কথা বলতে হয়। কথা বলতে বলতে কোনো সময় গলা শুকিয়ে যায়। তখন চা খেলে ভালো লাগে। কিন্তু তারপরও চা খাই না। কাউকে চা খেতে বলিও না। চা খেলে আবার কোন ঝামেলায় পড়ি; এই ভয়ে মাহফিলে প্রকাশ্যে আর চা খাই না।’

আত-তাহেরী বলেন, ‘আগামী ১০ দিনের মধ্যে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার বন্ধ না হলে আমি আইনের আশ্রয় নেব।’

তিনি বলেন, ‘আমার ওয়াজগুলো খণ্ডিত ও বিকৃত করে প্রকাশ করা হচ্ছে। আমার পুরো বক্তব্য প্রকাশ করা হচ্ছে না। এর জন্য কিছু ইউটিউব চ্যানেল দায়ী। জনপ্রিয়তা ও অর্থ উর্পাজনের জন্য তারা এসব কাজ করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি এরইমধ্যে অন্তত ১৫টি ইউটিউব চ্যানেলকে শনাক্ত করেছি। ওই চ্যানেলগুলো আমার বিরুদ্ধে ধারাবাহিক অপপ্রচার চালাচ্ছে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে অপপ্রচার বন্ধ না হলে আমি আইনি ব্যবস্থা নেব

আপনার মতামত লিখুন :