• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৪:১৪ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

টেকনাফের ইউএনও মোহাম্মদ কায়সার খসরুকে প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই, ২০২২

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ কায়সার খসরুকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনারের অফিসে সংযুক্ত করা হয়েছে। আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নিয়ে সংবাদ পরিবেশনকে কেন্দ্র করে এক সাংবাদিককে ফোন করে গালিগালাজ করায় তার বিরুদ্ধে প্রাথমিকভাবে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

তদন্ত শেষে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সোমবার রাতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল একাধিক সূত্র যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানিয়েছিলেন, ইউএনও খসরুকে ওএসডি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে, গালিগালাজ ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন দেখে হাইকোর্ট পরবর্তী আদেশ দেবেন বলে জানা গেছে।

ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সাংবাদিকের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করার কারণে টেকনাফের ইউএনওকে অবিলম্বে ওএসডি করা হবে। তার বিষয়টি এখন উচ্চ আদালতে বিচারাধীন। আদালত তার বিষয়ে যে নির্দেশ দেন আমরা তা প্রতিপালন করব। প্রজাতন্ত্রের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তার ভাষা এমন হতে পারে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর মাধ্যমে প্রশাসন সম্পর্কে জনমনে ভুল ধারণা তৈরি হতে পারে। এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব আনোয়ারুল বলেন, ইতোমধ্যে তাকে (ইউএনও খসরু) ওএসডি করে নিয়ে আসার জন্য বলা হয়েছে। রোববার বিভাগীয় কমিশনারদের সম্মেলনে জোরালোভাবে বলা হয়েছে-তারা (কমিশনাররা) যখন জেলায় যাবেন তখন সব কর্মকর্তার সঙ্গে বসে চাল-চলন আচার-আচরণ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেবেন। কারণ এটি তো সাংবাদিকের বিষয় নয়, এ ভাষায় কারও সঙ্গেই কথা বলা যায় না। যে যত বেশি ব্যবস্থাপনার কাজে থাকবেন, উপরে থাকবেন তত বেশি মাথা ঠান্ডা করে কথা বলতে হবে।

ইউএনওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, ইউএনও খসরুকে ক্লোজ করে বিভাগীয় কমিশনারের অফিসে সংযুক্ত করা হয়েছে। তবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব যে নির্দেশনা দিয়েছেন সেটা অফিসিয়ালি এখনো আসেনি। দু-এক দিনের মধ্যে নতুন সিদ্ধান্তের কথা জানা যাবে। ওই উপজেলায় নতুন ইউএনও নিয়োগের কাজ চলছে।

এদিকে, আদালতে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমি উদ্দিন মানিক বলেন, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি জানিয়েছেন-গালিগালাজের ঘটনায় টেকনাফের ইউএনও খসরুকে শোকজ করেছেন জেলা প্রশাসক। তাকে সাত দিনের মধ্যে শোকজ নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে পুরো বিষয়টি জানানো হয়েছে। পাশাপাশি চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছে। কমিটি সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেবে। তখন আদালত বলেন, ঠিক আছে। তাহলে তদন্ত প্রতিবেদন আসুক। প্রতিবেদন দেখে পরবর্তী আদেশ দেব। সোমবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ কথা বলেন। এর আগে রোববার সংবাদ প্রকাশের জেরে ঢাকা পোস্টের প্রতিবেদককে ইউএনও কায়সার খসরুর অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানতে চান হাইকোর্ট।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ