• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন

“প্রফেসর ড. জামাল নজরুল ইসলাম তাঁর কর্ম ও সৃষ্টির মধ্যে যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকবেন”-প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার

নিউজ রুম / ১৩০ ভিউ টাইম
আপডেট : বুধবার, ২ অক্টোবর, ২০১৯

এম. আবদুল হাকিম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য (দায়িত্বপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার বলেছেন, মহাবিশ্বের উদ্ভব ও পরিণতি বিষয়ে মৌলিক গবেষণার জন্য আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাত প্রফেসর ড. জামাল নজরুল ইসলাম ছিলেন ছোট দেশের বড় বিজ্ঞানী। তিনি একাধারে পদার্থবিজ্ঞানী, গণিতবিদ, জ্যোতির্বিজ্ঞানী ও বিশ্বতত্ত্ববিদ হিসেবেও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্বীকৃত। ২ অক্টোবর ২০১৯ সকাল ১০.৩০ টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জামাল নজরুল ইসলাম গণিত ও ভৌত বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের (JNIRCMPS) উদ্যোগে এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ও এ কে খান ফাউন্ডেশনের যৌথ সহায়তায় JNIRCMPS-এর কনফারেন্স রুমে দু’দিন ব্যাপী আয়োজিত (২-৩ অক্টোবর) প্রফেসর ড. জামাল নজরুল ইসলামের ৮০ তম জন্মবার্ষিকী ও ‘Bioinformatics for Sustainable Development in Agriculture and Health’ শীর্ষক জাতীয় ওয়ার্কশপ ২০১৯ এর উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চবি বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সফিউল আলম, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ড-এর সদস্য জনাব সাদাফ সাজ সিদ্দিকী এবং বিবিসিবিএ’র প্রেসিডেন্ট রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের বায়োইনফরমেটিক্স ল্যাবের প্রধান প্রফেসর ড. মো. নুরুল হক মোল্লা।
প্রধান অতিথি তাঁর ভাষণে প্রফেসর ড. জামাল নজরুল ইসলামের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, জ্ঞান তাপস অসাধারণ প্রতিভাধর এই বিজ্ঞানী ছিলেন নির্লোভ, নিরহংকার, অমায়িক, বন্ধুবৎসল, মুক্তমনা সর্বোপরি একজন আদর্শ মানুষ। প্রতিথযশা এই বিজ্ঞানী বিজ্ঞান চর্চার পাশাপাশি ধর্ম, সাহিত্য, সংস্কৃতি চর্চা নিয়ে যেমন ভাবতেন তেমনি দেশ ও সমাজের উন্নতি নিয়েও তিনি চিন্তা করতেন। তিনি আরও বলেন, প্রফেসর ড. জামাল নজরুল ইসলাম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা-গবেষণার উন্নয়নের জন্য যে অবদান রেখে গেছেন বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার তাঁকে আজীবন স্মরণ রাখবে। দেশের শীর্ষস্থানীয় এই বিজ্ঞানী তাঁর গবেষণা কর্ম ও সৃষ্টির মাঝে বিশ্ববাসীর হৃদয়ে চিরদিন বেঁচে থাকবেন। মাননীয় উপাচার্য (দায়িত্বপ্রাপ্ত) আরও বলেন, কৃষি ও স্বাস্থ্যের টেকসই উন্নয়ন বিষয়ক আয়োজিত এ কর্মশালা আমাদের শিক্ষক-গবেষক ও শিক্ষার্থীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ কর্মশালার টেকনিক্যাল সেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে শিক্ষক-গবেষকদের পারস্পরিক জ্ঞান আদান-প্রদানের ফলে শিক্ষা গবেষণার নতুন নতুন দিক নির্দেশনা পাওয়া যাবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার ৮ম জাতীয় বায়োইনফরমেটিক্স ওয়ার্কশপের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জামাল নজরুল ইসলাম গণিত ও ভৌত বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক ওয়ার্কশপ আয়োজন কমিটির সমন্বয়ক প্রফেসর ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী-এর সভাপতিত্বে এবং ওয়ার্কশপ আয়োজন কমিটির সদস্য-সচিব চবি প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. দ্বৈপায়ন সিকদার-এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্চিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রফেসর ড. মো. আবুল কালাম আজাদ এবং ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট ড. নার্গিস ইসলাম। দু’দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত ওয়ার্কশপে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষক-গবেষকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ