• শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন

আশা মরিচ্যা ব্রাঞ্চে মাধ্যমিক শিক্ষার গুণগত

মানোন্নয়নে মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিভাবক সভা সম্পন্ন

কামাল উদ্দিন জয় / ১০৯ ভিউ টাইম
আপডেট : বুধবার, ২২ মে, ২০২৪

প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের অভিভাকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ‘আশা’।
গত রবিবার ১৯ই মে ২০২৪ ইং আশা মরিচ্যা ব্রাঞ্চের উদ্যোগে কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ে আশার শিখন সহায়তা প্রাপ্ত ৯০ জন শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের নিয়ে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অভিভাকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভাতে সভাপতিত্ব করেন পাঠদানকেন্দ্রের মনিটর এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আবদুল করিম, প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আশা এরিয়া ম্যানেজার মো:শোয়াইব এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব, সিনিয়র এডুকেশন অফিসার মো: নাহিদ খাঁন ও ম্যানেজার মো আমিনুল ইসলাম।
অভিভাবক সমাবেশে অংশগ্রহণমূলক মতামতের ভিত্তিতে
অভিভাবক মোছা: তাহেরা বেগম বলেন, আশা এনজিও গরীব ছাত্র তার মাঝে শত টাকার চারটি বিষয়ে পড়ার সুযোগ করে দিয়েছে, আমাদের পরিবারের ছাত্র ছাত্রী জন্য অনেক ভাল হয়েছে।
মো. লোকমান হাকিম বলেন, আমাদের ছেলে মেয়ে অনেক আনন্দে সাথে আশার পাঠদান কেন্দ্র আসে। বাংলা, ইংরেজি, গনিত, বিজ্ঞান বিষয়ে অনেক দুর্বল ছিল স্কুলের পাঠদানের পাশাপাশি আশার পাঠদান কেন্দ্র অনেক অগ্রগতি হয়েছে।
বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন মোঃ আমিনুল ইসলাম বিএম মরিচ্যা ব্রাঞ্চ, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন নাহিদ খাঁন শিক্ষা কর্মকর্তা আশা শিক্ষা কর্মসূচি কক্সবাজার-পটিয়া জেলা, শিক্ষা কর্মসূচির নিয়োগকৃত শিক্ষক বক্তব্য রাখেন মো ইউছুপ, ছৈয়দুল হক আকাশ ,শাহা আলম( শাহীন),আমিনুল ইসলাম আমিন, হুমায়ূন হক ছোট্ট, পিসি হুজ্জতুল ইসলাম চৌধুরী।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আশার এই মহৎ কর্মসূচীর ভূয়সী প্রশংসা করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে আরও বেশি সংখ্যক বিদ্যালয়ে এই সহযোগিতা বৃদ্ধি করার আন্তরিক অনুরোধ করেন।
এছাড়া বিশেষ অতিথিবৃন্দ আশা শিক্ষা কর্মসূচীর সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরেন। আশার ২০১১ সাল থেকে চলমান এই কর্মসূচিতে বর্তমান শিশু-৮ম শ্রেণি পর্যন্ত ৪ লাখ ৮৫ হাজার ৩২৬ জন শিক্ষার্থী অতিরিক্ত শিখন সহায়তা বা টিউশন সাপোর্টসহ বিভিন্ন শিক্ষাপোকরণ পাচ্ছে। এর মধ্যে ৫৯টি জেলার ৬১টি হাইস্কুলের ৫৪১১ জন গরীব পরিবারের শিক্ষার্থীরা এই সহযোগিতা পেয়ে আসছে।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ