• শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন

সিটি কলেজ এলাকার মহিউদ্দীনে বিরুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ

নিউজ রুম / ১৪৬ ভিউ টাইম
আপডেট : শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯

নাজিম উদ্দীন

কক্সবাজারে পৌরসভার সিটি কলেজ এলাকার মহিউদ্দীনের বিরুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার গুরুত্বর অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়দের তথ্যমতে গত ২০০৯সালে মহিউদ্দীন খালি হাতে সৌদি থেকে দেশে ফিরে আসেন।
পরে অভাবের তাড়নায় শ্যামলি পরিবহণে হেলফারের চাকরি নেন। একসময় জড়িয়ে পড়েন ইয়বা ব্যবসায়র সঙ্গে।

শ্যামলি পরিবহণের হালিম নামের এক ড্রাইভারও তার সঙ্গে পার্টনারে ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হন।
এর পর থেকে সারাদেশে চলছে তাদের ইয়াবার পাচার।

ইয়াবা ব্যবসায় লাখ লাখ টাকা আয়ের ফলে
গত ৪বছর আগে পরিবহণের চাকরি ছেড়ে দেন মহিউদ্দীন। এ পর্যন্ত তার দৃশ্যতর কোন ব্যবসা বানিজ্য নেই।তবুও তার চলেফেরা অনেক উচ্চ লেভেলের। বর্তমান তার একটি প্রাভেটকার,২টি সিএনজি এবং নিজে ব্যবহার করেন দামি বাইক।

তার বন্ধুদের তথ্যমতে মহিউদ্দীন দৈনিক যে পরিমাণ টাকা খরচ করেন এটি একজন শিল্পপতির পক্ষেও সম্ভব নয়। তাদের দাবি সে পরিবহণের চাকরি ছাড়লেও সেন্ডিকেটের মাধ্যমে এখনো ইয়াবার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

এরই মধ্যে তার সহযোগী হালিম ড্রাইভার ইয়াবাসহ পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন। এর পরও বহালতবিয়ত রয়েগেছেন মহিউদ্দীন।
এ কারনে নাকি তার প্রবাসি বাবা ও তার পরিবার ও আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে সম্পর্ক বিছিন্ন।

স্থানীদের দাবি মহিউদ্দীনকে গ্রেফতার করে জিঙ্গাসাবাদ করলে ইয়াবা ব্যবসার সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। বিশেষ করে পরিবহণ সেক্টরের ইয়াবা কারবারিদের চিহৃত করা সম্ভব হবে।

এ ব্যাপারে মহিউদ্দীনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করলেও তার লাখ টাকা আয় সম্পর্কে ব্যাখ্যা দিতে পারেননি।

সূত্র আলোকিত উখিয়া


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ