কক্সবাজারে শীতের আগমনকে ঘিরে গ্রামে গ্রামে সবজি চাষ

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৩১ PM, ২১ অক্টোবর ২০১৯

শাহীন মাহমুদ রাসেল:

শীতের আগমনকে ঘিরে কক্সবাজারের বিভিন্ন উপজেলার গ্রামে গ্রামে সবজি চাষের হিড়িক পড়ে গেছে। সদরের খরুলিয়া, বাংলাবাজার, ফতেঁখারকুল, রামু কাউয়ারখোপ, মিঠাছড়ি, মনিরঝিল, চকরিয়ার রসুলাবাদসহ বিভিন্ন এলাকায় ধুম পড়েছে শীতকালীন সবজি চাষে। শীতের শাক-সবজিতে ভরে গেছে মাঠ।

কৃষকরা বলছেন, বছরের শুরুতে বৃষ্টি আতঙ্ক থাকলেও এবার মাঠে ফলন ভালো দেখা যাচ্ছে। সবজির ভরা মৌসুম বলা হয় শীতকালকে। যখন হরেকরকম শাক-সবজির স্বাদ নেওয়ার সুযোগ মেলে। যদিও শীত আসতে এখনো অনেকটা বাকি, তবু এরই মধ্যে গ্রামবাংলায় শোভা ছড়াচ্ছে শীতকালীন বাহারি সবজির খেত।

সবজির রাজধানীখ্যাত চকরিয়ায় চাষ হচ্ছে শীতকালীন আগাম সবজি। যদিও এখন বারো মাস প্রায় সবরকম সবজি পাওয়া যায় এই এলাকায়। তবে এখন মাঠের পর মাঠ চাষ হচ্ছে বাঁধাকপি, লাউ, ফুলকপি, টম্যাটো, শিম, মুলা, পালংশাক, লালশাকসহ হরেকরকম সবজি।

কক্সবাজার সদরের খরুলিয়া এলাকার কৃষক আবুল ফজল বলেন, বছরের শুরুতে বৃষ্টি আতঙ্ক তৈরি করলেও শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি বেশি হয়নি। সে কারণে এবছর জমিতে সবজির ফলন বেশ ভালো দেখা যাচ্ছে। বাজারে তাই ভালো দামের আশা করছেন তিনি।

মিঠাছড়ি গ্রামের শাহাদত বলেন, আমি এক বিঘা জমিতে বেগুন লাগিয়েছি। ফলন দেখছি ভালোই হয়েছে। আশা করছি এ বছর সবজি বিক্রি করে বিগত দিনের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারব।

কাউয়াখোপ গ্রামের রুহুল আমিন বলেন, আমরা শীতের সবজি চাষ শুরু করেছি। তবে সবসময় দাম ভালো পাওয়া যায় না। তাই শীতের আগাম সবজি চাষ করেছি। তবে সারাবছর ভালো দামে বিক্রি করতে চাই।

উপসহকারী কৃষি অফিসার মো: মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, এ অঞ্চলে শীত আসার অনেক আগে থেকেই আগাম সবজির চাষ করেন কৃষকরা। কিছুটা বেশি লাভের আশায় নিবিড় শ্রম দিচ্ছেন তারা। আর কিছুদিন পরে মাঠে মাঠে সবজির সমাহার হবে।

জেলা কৃষি সম্প্রাসরণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক আ, ক, ম, শাহরীয়ার বলেন, কক্সবাজারের কিছু কিছু এলাকায় সারাবছরই সবজি চাষ হয়ে থাকে। এবছর শীতকালে ৬ হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। তিনি বলেন, সবজি চাষকে লাভজনক করতে বিভিন্ন পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :