• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৫১ পূর্বাহ্ন

টাঙ্গাইলে দুই সিএনজির পাল্লা দিতে গিয়ে ৮ বছরের স্কুল ছাত্র নিহত

নিউজ রুম / ৩০৫ ভিউ টাইম
আপডেট : রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯

টাঙ্গাইল প্রতিনিধ,
টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার সিংহেরচালা গ্রামের শহিদুল ইসলামের আট বছরের ছেলে সাগর। সে উপজেলার সিংহেরচালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র।
প্রতিদিনের মতো শনিবার (২৩ নভেম্বর) সাহপাঠীদের সাথে স্কুলে যায়। স্কুলে শেষে সে বাড়ি ফিরবে। মা লাভলী ছেলের জন্য অপেক্ষায়। ছেলে বাড়িতে ফিরল ঠিকই কিন্তু লাশ হয়ে। দুই সিএনজিচালকের পাল্লা দিয়ে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো কারণে স্কুল থেকে সামন্য দূরে পাকা সড়কেই সিএনজির নীচে পড়ে তার প্রাণ যায়। সিংহেরচালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আবু সাইদ ও পুলিশ জানান, স্কুল ছুটি হলে সহপাঠীদর সাথে বাড়ি ফিরছিল সে। এ সময় দুটি সিএনজি পাল্লা দিয়ে গারোবাজার যাচ্ছিল। একই সময় সামনের দিক থেকে আসা একটি ব্যাটারিচালিত অটোবাইককে সাইড দিতে গিয়ে একটি সিএনজি সড়কের পাশে কলাগাছের সাথে ধাক্কা খায়। সিএনজিটি দুমড়ে মোচড়ে গিয়ে সড়কের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়া স্কুলছাত্র সাগরের ওপর গিয়ে পরে। এতে সে গুরুতর আহত হয় এবং ঘটনাস্থলেই তার মারা যায়।
এ ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে এলাকাবাসী ও স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ঘাটাইল-গারোবাজার সড়ক প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান একাব্বর হোসেন ও পুলিশ সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলে এলাকাবাসী-শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নেয়। সাগরদিঘী তদন্ত কেন্দ্রের এসআই ফজলুল হক জানান, দুই সিএনজিচালকের চালকের পাল্লা দিয়ে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো কারণেই স্কুলছাত্র সাগরের মৃত্যু হয়ে। এ ঘটনায় সিএনজিচালক আলম মিয়া (২৫) আহত হয়। তাকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। অপর সিএনজিচালক সিএনজিসহ পালিয়ে যায়।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ