Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:৪৯ PM, ০৭ জানুয়ারী ২০২০

এ.এম হোবাইব সজীব,মহেশখালীঃ

মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের উত্তর প্রান্তে অবস্থিত সিঙ্গাপুর প্রকল্পে দায়িত্বরত আনসার সদস্য সাইফুল ও মহি উদ্দিন বহিরাগত বিভিন্ন জন থেকে টাকা নিয়ে লবণ মাঠে কাজ করার সুযোগ দিচ্ছেন বলে গুরুত্বর অভিযোগ উঠেছে। ওই আনসার সদস্যদের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়া স্থানীয় লবণ চাষীদের সুযোগ না দেয়ায় হতাশায় ভুগছে এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা।

স্থানীয় ভূক্তভোগী লবণ চাষীরা জানান, উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের দু পাশে ২টি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প হচ্ছে। তবে দক্ষিণ প্রান্তে জাপানী সংস্থা জাইক্যার অর্থায়নে দুই ইউনিটের মাধ্যমে ১২ শত মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্য নিয়ে বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সিঙ্গাপুর প্রকল্পের অর্থায়নে অধিগ্রহণ করা ১২ শত একর জমিনে এখনো অবকাঠামো নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করেনি। পরিত্যাক্ত রয়েছে উক্ত প্রকল্পের জায়গা। এছাড়া ঐ প্রকল্পের ৭০% লোক এখনো স্ব-স্ব জমিনের টাকা পায়নি। তবে এ প্রকল্প তদারকি করার জন্য একটি আনসার ক্যাম্প দেয়া হয়েছে। অবকাঠামো নির্মাণের কাজ শুরু না করায় উক্ত প্রকল্পের জমিনের মালিকরা স্ব-স্ব জায়গায় লবণ চাষ করার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে সম্প্রতি লবণ উৎপাদনের কার্যক্রম শুরু করেছে।

এ অবস্থায় আনসার ক্যাম্পের সদস্য সাইফুল ও মহি উদ্দিন অঘোষিতভাবে বহিরাগত বিভিন্ন জনের কাছ থেকে কানি প্রতি ২-৩ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়ে লবণ মাঠ দখল দিচ্ছে। ফলে প্রকৃত লবণ চাষী ও জমিনের মালিকরা লবণ চাষ করতে ব্যর্থ হওয়ায় মাথায় হাত দিয়েছে।

বিষয়টি মাতারবাড়ী সাধারণ লবণচাষীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে অভিযুক্ত ২ আনসার সদস্যের বিরুদ্ধে লোকজন ফুঁসে উঠছে দিন দিন। অভিযুক্ত ২ আনসার সদস্য এ বিষয়ে কোন ধরণের মন্তব্য করতে রাজি নন। অন্যদিকে বিষয়টি সত্য কিনা জানার জন্য কোল পাওয়ারের সিকিউরিটি প্রধান আলফাজ থেকে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বিষয়টি শুনেছি, তবে অভিযুক্ত ২ আনসার সদস্যকে অন্যত্রে বদলী করার জন্য মহেশখালী আনসার বাহিনীর প্রধান জসিম উদ্দিনকে নির্দেশ দিয়েছি। আশা রাখি তিনি শীঘ্রই কার্যকর ব্যবস্থা নেবেন।

আপনার মতামত লিখুন :