মহেশখালীতে চুরির অভিযোগে মা ছেলেসহ ৪ জনকে পিটিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:২৩ PM, ০৯ জানুয়ারী ২০২০

মারজান আহমদ চৌধুরীঃ

চুরির করার অভিযোগে পিটিয়ে জখম করলো দিন মজুর পরিবারের মা ছেলে সহ ৪ জনকে। মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ির ইউনিয়নের ৯নং ওর্য়াডের র্সদার পাড়া গ্রামে এই অন্যায় কাজটি করেছে স্থানীয় প্রবাসী তাজম উদ্দিনের স্ত্রী শাহানা বেগম ও তার নিকটতম আত্মীয় স্বজনরা।

স্থানীয়রা জানান, গত মঙ্গলবার ১ জানুয়ারী প্রবাসী তাজম উদ্দিনের বাড়িতে মোবাইলসহ অন্যান্য জিনিস পত্র চুরি হয়। এসময় এলাকার অনেক লোকজন ওই বাড়িতে দেখতে যায় এসময় সাধারন মানুষের সাথে একই এলাকার নুর হোসেনের স্ত্রী রাশেদা ও তার সন্তানরা দেখতে যায়। কিছু বুঝে ওঠার আগে প্রবাসীর স্ত্রী সাহানা ওই দিন মজুরের স্ত্রী সন্তানদের চুরির অপবাদ দিয়ে বাড়ির ভিতর আটকে রেখে বেধড়ক মারধর করতে থাকে এক পর্যায়ে শিশু গুলো সয্য করতে না পেরে চুরির বিষয় স্বীকার করেছে বলে জানাগেছে।

ওই দিন বিকালে দিকে পুলিশকে প্রবাসীর স্ত্রী খবর দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ৩ শিশু সহ রাশেদাকে পুলিশ নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ঘটনার খবর পেয়ে তার জিম্মায় নিয়ে আসে। তিনি বিষয়টি মিমাংসা করে দেওয়ার কথা রয়েছে। মার ধরে আহতরা হলেন রাশেদা বেগম (৪৩), শিশু সাগর (৯), জাকের(৮) ও রাশেল (৯)।

ঘটনাটির বিষয়ে পরস্পর বিরুদী বক্তব্য পাওয়া গেছে। বিভিন্ন সংবাদে মাধ্যমে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল কবির জড়িত রয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে যে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে তা সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন নুরুল কবিরের পারিবারিক সুত্রে। তবে নুরুল কবিরের ভাষ্যমতে ঘটনাটি মাতারবাড়ী ফাঁড়ী পুলিশের সদস্যরা থাকে অবহিত করেছে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে। মারধরের বিষয়ে তিনি অবগত নই বলে জানান। এছাড়া ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলছেন নুরুল কবির উক্ত ঘটনার সাথে আদৌও জড়িত নই। এতে বিভ্রান্ত হওয়ার অবকাশ নাই। বিষয়টি সম্পর্কে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বাড়ীর মালিক প্রবাসির স্ত্রী শাহানা বেগম হামলার মুল পরিকল্পনাকারী। এতে স্থানীয় কাউকে দোষ দিয়ে ঘটনাটি ভিন্নখাতে না নিলে ভাল হয়। এই বিষয় কথা হয় আহত রাশেদার সাথে তিনি জানান, আমার স্বামী একজন দিন মজুর মানুষের বাড়ি গিয়ে মজুরী কাজ করে ছেলেদেরকে লালন পালন করছি চুরির করার প্রশ্নেই আসেনা, শাহানা বেগম আমাকে ও আমার শিশুদের কে বাথরুমে আটক করে উপযুক্তপরি মারধর করছে আমার শিশুরা এখন হাটতে পারেনা। আমি, এই অমানবিক হামলার বিচার চাই।

আপনার মতামত লিখুন :