• বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:৫৮ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

কাকুতি মিনতি করে বেগম জিয়ার মুক্তি হবে না : গয়েশ্বর

Office Room
আপডেট : শনিবার, ১৮ মে, ২০১৯
কাকুতি মিনতি করে বেগম জিয়ার মুক্তি হবে না : গয়েশ্বর - নয়া দিগন্ত

বিএনপি’র স্থায়ী কিমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, রাজপথের আপোষহীন আন্দোলন ছাড়া আমাদের আপোষহীন নেত্রীকে মুক্ত করা যাবে না। কাকুতি মিনতি করে কখনোই এই সরকারের জেল থেকে বেগম জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না বলেও তিনি মন্তব্য করেন। আইন আদালতের প্রতি দেশের মানুষের এখন আর কোন আস্থা নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকারের বিভিন্ন দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের পক্ষ থেকে যেভাবে আদালতকে অবমাননা করে বক্তব্য দেয়া হয় তাতে জনগণের কাছে আইন আদালতও হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এসব কথা বলেন। মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে মহিলা দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেত্রীবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় আরো বলেন, সরকারের কাছে কাকুতি মিনতি করে বেগম জিয়ার মুক্তি আসবে না। রাজপথের আন্দোলন সংগ্রামই বেগম জিয়ার মুক্তির একমাত্র পথ। আর আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে নেমে জেল জুলুমের ভয় করলে চলবে না। আন্দোলন করতে গেলে জেল আসবে জুলুম আসবে। এসবকে মোকাবেলা করেই সামনে এগিয়ে যেতে হবে। সম্প্রতি আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন ‘টাকা হলেই আইন আদালত কেনা যায়’ এমন বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে তিনি বলেন, এমন ঔদ্বত্যপূর্ণ বক্তব্য সরকার বিরোধীদের অন্য কেউ দিলে তাকে জেল খানায় থাকতে হতো। কিন্তু সরকারী লোক হওয়াতে নাসিম সাহেবরা এসব কথা অকপটে বলতে পারছেন।

প্রধানমন্ত্রীকে একজন হৃদয়হীন ব্যক্তি উল্লেখ করে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, প্রধানমন্ত্রীর হৃদয়ে দয়া থাকলে বেগম খালেদা জিয়া এতদিন জেলে থাকতেন না। প্রধানমন্ত্রী উল্টো বেগম খালেদা জিয়ার সাথে উপহাস করছেন অভিযোগ করে তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ্য শরীর নিয়েই রোজা রাখছেন। আর এতেই প্রধানমন্ত্রী বলছেন অসুস্থ্য হলে তিনি ( বেগম খালেদা জিয়া) রোজা রাখছেন কিভাবে ? আর জেলখানায় বসে পায়েশই বা খাচেছন কিভাবে ?

তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি আজ যে দৃষ্টান্ত রেখে যাবেন ভবিষ্যতে তার ফল আপনাকেও ভোগ করতে হবে। কাজেই ভেবে চিন্তে কথা বলবেন এবং কাজ করবেন।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ
February 2023
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031