দুই মাস ভেসে ২৫ রোহিঙ্গার মৃত্যু, ফিরল ৪ শতাধিক

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:৫১ AM, ১৭ এপ্রিল ২০২০

চ্যানেল কক্স ডেস্ক:

কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলীয় এলাকা থেকে ৪ শতাধিক রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। বুধবার (১৫ এপ্রিল) রাতে উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে অধিকাংশই নারী ও শিশু।

রোহিঙ্গাদের দাবি, দালাল চক্রের মাধ্যমে তারা দুই মাস আগে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ট্রলার যোগে মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। বিজিবি’র কর্মকর্তাদের ধারণা, দীর্ঘসময় সাগরে ভাসতে থাকায় ওই ট্রলারের অন্তত ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গাদের ইউএনএইচসিআর এর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শীলবুনিয়া সমুদ্র পয়েন্ট। এখানে ভাসমান বিদেশি একটি ট্রলার দেখতে ভিড় করেন স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার ওই ট্রলারে গভীর সমুদ্র থেকে ফিরেছে প্রায় ৪ শতাধিক রোহিঙ্গা।

দুই মাস আগে দালাল চক্রের মাধ্যমে তারা উখিয়া ও টেকনাফের ৩৪টি ক্যাম্প থেকে ট্রলারে সাগর পথে মালয়েশিয়া পাড়ি দিয়েছিল। তাদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় টেকনাফ ট্রানজিট ঘাটে।

প্রাণ ফিরে পাওয়া এসব রোহিঙ্গারা জানান, দালালের খপ্পরে পড়ে উন্নত জীবনের আশায় তারা মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে চেয়েছিলেন। কেউ দুই মাস আবার কেউ এক মাস সাগরে ভাসার পর ফিরতে বাধ্য হন আবার টেকনাফে।

পরে দুপুরে উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গাদের কোস্টগার্ড হস্তান্তর করে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের কাছে।

কোস্টগার্ডের টেকনাফ স্টেশনের কমান্ডার লে. কমান্ডার সোহেল রানা বলেন, ‘প্রথমে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। কোয়ারেন্টাইন শেষে ইউএনএইচসিআরের মাধ্যমে যার যার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হবে।’

টেকনাফ বিজিবির ২ ব্যাটালিয়নের উপ অধিনায়ক মেজর রুবায়েত কবির জানিয়েছেন ওই ট্রলারে থাকা ২৫ জনের বেশি রোহিঙ্গার সলিলসমাধি হয়েছে।

এরপর নানা প্রক্রিয়া শেষে উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গাদের টেকনাফের কেরুনতলী ও নয়াপাডা ট্রানজিট ক্যাম্পে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখার জন্য নিয়ে যায় ইউএনএইচসিআর।

আপনার মতামত লিখুন :