• শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৩২ পূর্বাহ্ন

ইসলামপুরে করোনা আসছে দেরি হবে না, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রাক জমজমাট

সংবাদদাতা
আপডেট : রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২০

সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁহ : কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামপুর শিল্প এলাকা নাপিতখালী বটতলীতে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রতিনিয়ত লবণবাহী ট্রাক গাড়িতে করে লোকজন আসার খবরে এলাকার লোকজনের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এতে এলাকায় মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিও বাড়ছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসী প্রশাসনকে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবী জানিয়েছেন।

অপরদিকে ইসলামপুর মিল ঘাট থেকে প্রতিদিন বোটে করে লবণ আসছে। সে লবণ ট্রাকে করে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জে।

রবিবার (১৯ এপ্রিল) সকালে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সদরের ইসলামপুর নাপিতখালী বটতলীতে বড় বড় ১০ থেকে ১২টি ট্রাক আসে নারায়ণগঞ্জ থেকে।
এছাড়া লবণ নিয়ে ভীড় করছে আরো অন্তত ১০টি ট্রাক।
এসব ট্রাকে করে আসা করোনভাইরাস আক্রান্ত চালক-হেলপার থেকে এলাকায় সংক্রমণ হতে পারে বলে এলাকাবাসী ধারণা করছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইসলামপুর নতুন অফিসের একজন বাসিন্দা বলেন, মহামারি করোনা ভাইরাস ঠেকাতে সারাদেশে গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে।
মালামাল পরিবহনে কোন নিষেধাজ্ঞা না থাকলেও সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জে করোনো ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় নারায়ণগঞ্জ জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।
কিন্তু ওই এলাকা থেকে প্রতিদিন বড় বড় ট্রাক আসছে নাপিতখালীতে।
ওখান থেকে সংক্রমিত ব্যক্তির মাধ্যমে করোনাভাইরাস ইসলামপুর ছড়িয়ে পড়ে তাহলে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হবে। প্রশাসনকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার আহবান জানান তিনি।

নাপিতখালীর ব্যবসায়ীরা বলেন, এলাকার একাধিক ব্যবসায়ী নারায়ণগঞ্জে লবণ ব্যবসা করেন। যারা ব্যবসা করছে তারা মূলত লবণ মিলারের কাছ থেকে মাল কিনে বিক্রি করে। বিসিকের পক্ষ থেকে ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা চালক ও হেলপারদের এড়িয়ে চলার জন্য।

ঈদগাঁহ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ইনচার্য মোঃ আসাদুজামান বলেন, মহাসড়কের সীমান্ত এলাকায় পুলিশের চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। চেকপোস্টে পুলিশ ছাড়াও সেনাবাহিনী কাজ করছে।
নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা গাড়িগুলো যেহেতু পণ্যবাহী। সেহেতু পণ্যবাহী গাড়ি আটকানোর নিয়ম নেই। তারপরও চেষ্টা করছি নিয়ন্ত্রণ করার।

কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহমুদ উল্লাহ মারুফ বলেন, ইসলামপুর এলাকা থেকে লবণ বোঝাই ট্রাকে করে কারা আসছে-যাচ্ছে তাদের ব্যাপারে খোঁজ-খবর নিতে স্থানীয় চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 + seventeen =

আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ