• শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৭:১৫ পূর্বাহ্ন
Channel Cox add

ঈদের আগে অভিজাত শপিং মল খুলছে না | সি কক্স নিউজ

সংবাদদাতা
আপডেট : শনিবার, ৯ মে, ২০২০
ফাইল ছবি

সি কক্স ডেস্ক নিউজ:

সারা দেশে ১০ মে থেকে অভিজাত মার্কেট ও শপিং মল খোলার সরকারি ঘোষণা থাকলেও চট্টগ্রাম, সিলেট ও ফরিদপুরে ঈদের আগে খুলছে না। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঈদে দোকানপাট না খুললে বড় ধরনের ব্যবসায়িক ক্ষতি হবে এটা যেমন সত্য, তেমনি খুললে করোনাভাইরাসে হাজার হাজার মানুষের জীবন ঝুঁকিতে পড়বে সেটাও সত্য।

করোনা পরিস্থিতিতে প্রায় দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে অঘোষিত লকডাউন চলছে। এতে অনেকের জীবিকা হুমকির মুখে পড়েছে। ঈদের আগে অভিজাত বিপণিবিতান খোলা না হলে ব্যবসায়ীরা কোটি কোটি টাকার লোকসানে পড়তে পারেন। নানা বিবেচনায় সরকারও ঈদের কেনাকাটার জন্য সীমিত আকার মার্কেট ও শপিং মল খেলার ঘোষণা দেয়। কিন্তু এতে সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যেখানে মানুষের জীবনই হুমকির মুখে সেখানে ঈদের কেনাকাটার প্রশ্নই উঠে না।

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মিমি সুপার মার্কেট, আফমি প্লাজা, খুলশি টাউন সেন্টারসহ বেশ কয়েকটি অভিজাত মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে সিদ্ধান্ত মার্কেট কর্তৃপক্ষ শুক্রবার দোকান মালিকদের জানিয়ে দিয়েছে। তবে ঐতিহ্যবাহী নিউমার্কেট, দুই বৃহৎ পাইকারি ও খুচরা টেরিবাজার ও রিয়াজউদ্দিন বাজার খোলা হবে কিনা সে বিষয়ে আজ সিদ্ধান্ত হবে।

এসব মার্কেটের সমিতি ও অধিকাংশ দোকান মালিক বন্ধের পক্ষে। তবে কেউ কেউ খোলার পক্ষে। এ দোটানায় শুক্রবার তারা সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ খুরশিদ আলম শুক্রবার যুগান্তরকে বলেন, মিমি সুপার মার্কেট, আফমি প্লাজাসহ সেন্ট্রাল এসি কয়েকটি মার্কেট ঈদের আগে না খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারা বলছেন, এয়ারটাইট মার্কেট করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি। ক্রেতাদের এখানে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না।

তাই তারা মার্কেট বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। চট্টগ্রামের বৃহৎ পাইকারি কাপড়ের বাজার টেরিবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান যুগান্তরকে বলেন, দোকান খোলা নিয়ে আমরা দ্বিধাদ্বন্দ্বে আছি। জীবন ও জীবিকার এ সংকটে আসলে কী করব বুঝতে পারছি না। সবার মতামত নিচ্ছি। তামাকুমুণ্ডি লেন বণিক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম যুগান্তরকে বলেন, রিয়াজউদ্দিন বাজারের অভ্যন্তরে তামাকুমুণ্ডি লেনের বণিক সমিতির আওতায় রয়েছে ১১০টি মার্কেট। তিনি বলেন, সমিতির নেতা এবং অধিকাংশ দোকান মালিক ঈদের আগে মার্কেট ও দোকান না খোলার পক্ষে।

ঈদের আগে সিলেট নগরীর মার্কেটগুলো খুলছে না। শুক্রবার সিটি কর্পোরেশনে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সিলেট চেম্বার সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব জানান, পরিস্থিতি বিবেচনায় শপিং মল, মার্কেট ও ফ্যাশন হাউস না খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

ফরিদপুরে আসন্ন ঈদ পর্যন্ত শপিং মল ও মার্কেট বন্ধ রাখার অনুরোধ জানানো হয়েছে। করোনাভাইরাস বিস্তার রোধ ও দ্রব্যমূল্য সংক্রান্ত বাজার মনিটরিং কমিটির সভায় নেতারা শপিং মল ও মার্কেট বন্ধ রাখার জন্য জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও চেম্বার অব কমার্সকে অনুরোধ জানান। শুক্রবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিভিন্ন বাজার কমিটির প্রতিনিধি, কমিটির অন্য সরকারি ও বেসরকারি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven − ten =

আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ