উখিয়ায় বাজার মনিটরিং অভিযানে ২১ দোকানদারকে ৬৮,৫০০ টাকা জরিমানা | সি কক্স নিউজ

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:২২ PM, ১৩ মে ২০২০

ইমাম খাইরঃ

কক্সবাজার জেলার উখিয়ায় বাজার মনিটরিং অভিযান পরিচালিত হয়েছে। বুধবার (১৩ মে) জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ ইমরান হোসাইনের নেতৃত্বে উখিয়া কাচা বাজার, কোট বাজার এলাকায় অভিযানে ২১ দোকানদারকে জরিমানা ৬২৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অভিযানে দন্ডিত প্রতিষ্ঠানসমূহ হলো- মেসার্স জিয়া এন্টার প্রাইজ ৫০০, দাশ ষ্টোর কে ৫০০, তপন ষ্টোর ৫০০, মেসার্স বাবুল বিশ্বাস ষ্টোর ৫০০, মেসার্স বাঁশি ষ্টোর ৫০০, মেসার্স তিলক ষ্টোর ৫,০০০, রাজীব ষ্টোর ৫০০, জামাল ষ্টোর ১,০০০, মেসার্স তপন ষ্টোর ১,০০০ মেসার্স খোরশেদ ষ্টোর ৫,০০০, মেসার্স সৈয়দ আলম ষ্টোর ৫,০০০, মেসার্স এস কে প্রবাল স্টোর ৫,০০০, এস আলম স্টোর ৫,০০০, রায়হান স্টোর ৫,০০০, মেসার্স আমিন এন্ড ব্রাদার্স ৫,০০০, মেসার্স রায়হান ট্রেডার্স ১০,০০০, আলম এন্ড ব্রাদার্স ৫,০০০ টাকা।

অভিযানকালে উখিয়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশীষ স্টোর ১০,০০০, জয়নাল আবেদিন স্টোর ৫০০, আইয়ান ট্রেডার্স ১,০০০ এবং ওসমান স্টোরকে ২,০০০ টাকা জরিমানা আরোপ করেন।

দোকানে মূল্য তালিকা না থাকা, ক্রয় রশিদ সংরক্ষণ না করা, নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অধিক দামে পণ্য বিক্রয় করা, সঠিকভাবে মূল্য তালিকা হালনাগাদ না রাখা, ত্রানের পন্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে দোকানে সংরক্ষণ করায় এসব দোকানদারকে জরিমানা করা হয়েছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ ইমরান হোসাইন জানান, বাজার তদারকি কালে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য, মজুদ ও সরবরাহ বিষয়ে বিভিন্ন কাঁচা ও মুদি দোকানে যাচাই বাছাই করা হয়। বাজারে কোন পণ্যের সংকট নেই এবং কাঁচা সবজির দাম কিছুটা কমেছে। এছাড়া অন্যান্য দ্রব্যের মজুদ সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে। রমজান মাস উপলক্ষে বাজারে কোন পণ্যের দাম বৃদ্ধি না করার জন্য ব্যবসায়িদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং পণ্যের মূল্য তালিকা অনুযায়ী বিক্রি করার জন্য বলা হয়েছে।

তিনি জানান, ব্যবসায়ীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিক্রি করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়।

জনস্বার্থে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের বাজার তদারকি অব্যাহত থাকবে বলে জানান মোঃ ইমরান হোসাইন।

অভিযানে প্রসিকিউটর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর তরুন বড়ুয়া।
অভিযানে আর্মড পুলিশ ব্যাটেলিয়ন
১৪ এর একদল সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :