উপদেষ্টা পরিষদের আকার বাড়ল, সহ-সম্পাদক বিলুপ্ত

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৫৯ PM, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৯

চ্যানেল কক্স ডেস্কঃ

আকার বাড়ল আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের। ৪১ সদস্য থেকে বাড়িয়ে ৫১ করা হয়েছে। একই সঙ্গে সহযোগী সংগঠনের মর্যাদা পেল মৎস্যজীবী লীগ। গতকাল রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সর্বশেষ কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

একই সঙ্গে আগামীকাল অনুষ্ঠেয় ২১তম জাতীয় সম্মেলনে নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। কমিশনের চেয়ারম্যান হয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন এবং সদস্য করা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা, দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ড. মশিউর রহমান ও উপদেষ্টা পরিষদের আরেক সদস্য অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমানকে। এ নির্বাচন কমিশন আগামী শনিবার দ্বিতীয় অধিবেশনে নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করবেন।

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠক আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে। বিলুপ্ত করা হয়েছে সহ-সম্পাদকের পদ। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সূত্র এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে গণভবনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকের মাঝখানে এক ঘণ্টার বিরতি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তাঁর সামরিক সচিব প্রয়াত মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীনকে দেখতে যান।

৮টার দিকে আবার বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে দলের সম্মেলন সফল করতে গঠিত ১১টি উপকমিটির নেতারা নিজ নিজ প্রস্তুতির কথা তুলে ধরেন। এর মধ্যে গঠনতন্ত্র উপকমিটির বিষয়গুলো  বেশি বিস্তারিত আলোচনা হয়। বৈঠকে গঠনতন্ত্র উপকমিটির আহ্বায়ক ড. আবদুর রাজ্জাক বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এটা আরও বড় করা প্রয়োজন, আপনারা কী বলেন? সবাই হাঁ সূচক জবাব দেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এখন ৪১ সদস্য করা হয়েছে। আগামী বছর থেকে ৫১ জনে করে দেই। সবাই একমত হওয়ায় বিষয়টি অনুমোদন করা হয়। ফলে আগামীতে উপদেষ্টা পরিষদে ১০ জন নতুন সদস্য যুক্ত হচ্ছেন। একইভাবে মৎস্যজীবী লীগকে দলের সহযোগী সংগঠনের মর্যাদা দেওয়া হয়। গঠনতন্ত্রে এ নিয়ে সংশোধনীও আনা হচ্ছে। সম্মেলনে কাউন্সিলরদের কাছে তা তুলে ধরা হবে। এরপর তাদের মতামতের ভিত্তিতেই এসব সিদ্ধান্ত পাস করে নেওয়া হবে। এ নিয়ে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের সংখ্যা দাঁড়াল ৭ এ। মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, যুবলীগ, যুব মহিলা লীগ, তাঁতী লীগ, আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ। গতকালের বৈঠকে আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের নামে সংশোধনী এনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আওয়ামী লীগ উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক পদ বিলুপ্ত করা হয়েছে।

কেননা সহ-সম্পাদক নিয়ে প্রতিবারই দলের মধ্যে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হয়ে থাকে। বিগত দিনে সহ-সম্পাদক পদটি ব্যবহার করে দলের অনেক নেতাই সচিবালয়সহ সরকারি বিভিন্ন দফতরে তদবির বাণিজ্য করত। কেউ কেউ সহ-সম্পাদক পদ নিয়ে তা পরিচয় দিয়ে নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য বা জনপ্রতিনিধির সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে। শুরু হয় গ্রুপিং, কোন্দল-মারামারি। এতে করে দলের অনেক বদনামও হয়েছে। দলটির হাইকমান্ডকেও একাধিকবার বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়েছে। ফলে সহ-সম্পাদক পদ আর না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দলটি।

বৈঠক সূত্র জানায়, গতকালের বৈঠকে বক্তব্য রাখেন অভ্যর্থনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ নাসিম, অর্থ উপ-কমিটির আহ্বায়ক কাজী জাফরউল্লাহ, ঘোষণাপত্র উপ-কমিটির আহ্বায়ক শেখ ফজলুল করিম সেলিম, সদস্য সচিব আবদুর রহমান, দফতর উপ-কমিটির আহ্বায়ক পীযুষ ভট্টাচার্য, সদস্য সচিব আবদুস সোবহান গোলাপ, মঞ্চ ও সাজসজ্জা কমিটির আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সদস্য সচিব মির্জা আজম, প্রচার ও প্রকাশনা কমিটির আহ্বায়ক এইচ টি ইমাম, সদস্য সচিব ড. হাছান মাহমুদ ও আমিনুল ইসলাম আমিন, শৃঙ্খলা উপ-কমিটির আহ্বায়ক আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, সদস্য সচিব আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, গঠনতন্ত্র সংশোধন উপ-কমিটির আহ্বায়ক ড. আবদুর রাজ্জাক, সদস্য সচিব আফজাল হোসেন, স্বাস্থ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সদস্য সচিব ডা. রোকেয়া সুলতানা, সংস্কৃতিক উপ-কমিটির আহ্বায়ক আতাউর রহমান, সদস্য সচিব অসীম কুমার উকিল, খাদ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। এ ছাড়াও গত তিন বছরে দল ও সরকারের সাফল্য নিয়ে আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বক্তৃতা করেন।

আপনার মতামত লিখুন :