মাতারবাড়ীতে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ পিরানহা | ChannelCox.com

Najim UddinNajim Uddin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৫৫ PM, ৩০ জুন ২০২০

ইয়াছিন আরাফাত,মহেশখালী:

মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ীর পুরানবাজারসহ বিভিন্ন বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ মাছ পিরানহা। কিছু অসাধু মাছ ব্যবসায়ী চাঁদা মাছ বলে মাংসাশী পিরানহা ভোক্তাদের বিক্রি করছেন।

উপজেলার মাতারবাড়ীর পুরানবাজার মাছ বাজারে দেখা যায় চাঁদা মাছের মতো দেখতে এই মাছকে কখনো চাঁদা মাছ কখনো পুকুরের চাঁন্দা মাছ বলে সাধারণ ক্রেতাদের ধোকা দিয়ে বাজারে রাক্ষুসে পিরানহা মাছ বিক্রি করা হচ্ছে।

পুরান বাজারের একজন ক্রেতা বলেন, বাজারে মাছ কিনতে গিয়ে চোখে পড়ে সামনে বড় বড় দাঁত ওয়ালা কিছু মাছ নিয়ে দুইজন মাছ ব্যবসায়ী বিক্রি করছে। তাদের কাছে গিয়ে মাছের নাম জিজ্ঞেস করতেই কখনো চাঁদা মাছ কখনো পুকুরের চাঁন্দা মাছ বলে নাম বলতে থাকে এজ বিক্রেতা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক মাছ বিক্রেতা জানান, মাতারবাড়ীর মাছ ব্যবসায়ীরা চকরিয়ার ইলিশিয়া থেকে তেলাপিয়া ও পাঙ্গাশ মাছের সাথে নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ এনে দুইশো-আড়াইশো টাকা দরে বিক্রি করেছে।

পিরানহা মাছ চাষ, পরিবহন ও বিক্রি সরকার নিষিদ্ধ করেছে। যদি কেউ এই মাছ চাষ কিংবা বিক্রি করেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। কিন্ত মাতারবাড়ীতে প্রশাসনিক ভাবে মাছ বাজারে মনিটরিং না থাকায় অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ এ মাংসাশী পিরানহা।

সরকারী বিধি মোতাবেক বিক্রয় নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ নির্মূলে স্থানীয় প্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অভিযান পরিচালনার দাবি জানিয়েছেন সচেতন মহল।

ডাক্তাররা বলেন, পিরানহা মাছ খাওয়ার পর ফুসফুসে ক্যান্সার,ব্রেন ক্যান্সার, স্ট্রোক সহ নানাবিধ জটিলরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন এলাকার রাক্ষুসে মাছ পিরানহা। হাঙ্গরের ন্যায় দাঁত বিশিষ্ট অত্যন্ত আক্রমণাত্মক এ মাছ জলজ পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্ত করার পাশাপাশি মানুষকেও আক্রমণ করতে পারে। এরা দলবদ্ধ আক্রমণ নিমিষেই মানুষের প্রাণ কেড়ে নিতে সক্ষম।

Channel Cox News.

আপনার মতামত লিখুন :