• বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪৮ পূর্বাহ্ন

অসম্পূর্ণ বেরিবাঁধ দিয়ে পানিঢুকে গ্রাম প্লাবিত হওয়ার আশংকায় উদ্বিগ্ন এলাকাবাসি

Md. Nazim Uddin
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১ এপ্রিল, ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ার দেড় লক্ষ মানুষের সর্বপ্রথম চাহিদা পরিকল্পিত টেকসই বেরিবাঁধ৷ ইতিমধ্যে সরকারের দেয়া বরাদ্ধের মাধ্যমে বেরিবাঁধ নির্মাণের কাজ পূর্ণ গতিতে এগিয়ে চললে ও উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের দক্ষিণ আমজাখালী ওন্দরা মার্কেট সংলগ্ন মাত্র ১০০মিটার বাঁধের কাজ অসম্পূর্ণ রয়ে যায়৷ চলমান ভরাকাটলের পূর্ণ জোয়ারে অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি পেতে পারে সাগরের পানি, ফলে বেরিবাঁধের এই অংশ দিয়ে পানি ঢুকে প্লাবিত হতে পারে মানুষের ঘরবাড়িসহ পুরো গ্রাম এবং সম্পন্ন হওয়া বেরিবাঁধের ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন এলাকার জনগন৷ তাই বেরিবাঁধের অল্প এই অংশটুকু দ্রুত সম্পূর্ণ করে জোয়ারের প্লাবন থেকে এলাকাবাসীকে নিরাপদ রাখতে স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে নিয়ে মানব বন্ধন করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন অত্র এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য আবদুস সাত্তার৷

এলাকার বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, আমরা সারা বছর বেরিবাঁধ চেয়েছি তা পেয়েছি কিন্তু এই সামান্য জায়গা অরক্ষিত থাকার কারণে এই অংশ দিয়ে পানি ঢুকে সম্পূর্ণ গ্রাম প্লাবিত হতে পারে, বেরিবাঁধের বাহিরে থাকা লবণের মাঠ ইতিমধ্যে পানিতে তলিয়ে গেছে সাথে চাষীদের লবণ নষ্ট হয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকার এবং মৌসুমের বাকী সময় লবণ উৎপাদন থেকে বঞ্চিত কৃষকগণ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির মধ্যে পড়েছে৷ গ্রামে পানি প্রবেশ করলে ধানক্ষেত ও ফসলী জমির বড় ধরণের ক্ষতি হবে৷ দ্রুত এই ১০০মিটার বেরিবাঁধের কাজ শেষ করে তাদের সম্ভাব্য ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তাঁরা৷

এব্যাপারে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য আবদুস সাত্তার বলেন, আমি ১৯৯২সালে এই এলাকার মেম্বার নির্বাচিত হই, প্রায় আট বছর যাবৎ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করি, সেই থেকে এলাকাবাসীর বিপদে আপদে, সুখে দুঃখে তাঁদের পাশে থাকা আমার দায়িত্ব হয়ে পড়ে৷ সবসময় আমি এলাকার জনগনের সমস্যায় তাঁদের পাশে থেকে কাজ করে যাওয়ার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি৷ আজকে বেরিবাঁধের ফাঁকা অংশ দিয়ে পানি ঢুকে এলাকা প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা দেখে আমার জনগন কে সাথে নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি অতি দ্রুত এই কাজ শেষ করে আমার এলাকাবাসিকে রক্ষা করুন৷ তিনি আরো বলেন, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে জনগনের অনুরোধে আমি আবার ও ৪নং ওয়ার্ড়ের মেম্বার পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছি, আশা করি তাঁরা আমাকে পুনরায় নির্বাচিত করে জনতার সক্রিয়ভাবে সেবা করার সুযোগ দান করবেন৷

কাজের টিকাদারী প্রতিষ্ঠান ঈগল রিচ কনষ্ট্রাক্শন এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডাইরেক্টর মেজর (অবঃ) ফজলুল হক শাহীন এব্যাপারে জানান, মুলত আলাদা আলাদা প্যাকেজ ভিত্তিক কর্মপরিকল্পনায় কুতুবদিয়ার বিভিন্ন অংশে মোট পাঁচ কিলোমিটার জায়গা বাদ পড়েছে, যত দ্রুত সম্ভব আমরা আমাদের কাজ প্রায় শেষ করেছি, সময়মত বিল না পাওয়ায় কাজ চালিয়ে নিতে আমাদের একটু সমস্যা হচ্ছে তবে বর্ষার আগেই আমরা সম্পূর্ণ কাজ শেষ করতে পারব বলে আশাবাদী৷ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রতি আমাদের আকুল আবেন সময়মত বিল পরিশোধ করে কাজের অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে যেন সহযোগিতা করেন৷ তিনি আরো বলেন বাদপড়া অংশ গুলো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে তবে তার আগেই নিজ দায়িত্বে সেসব কাজ ও সম্পন্ন করবেন বলে তিনি প্রতিবেদক কে আশ্বস্ত করেন৷

কুতুবদিয়া উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা (এসও) এলট্রন মার্মা ও মং চা তুই মার্মার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাঁদের পাওয়া যায়নি৷

SuperWebTricks Loading...

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two − one =

আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ
error: Content is protected !!