• রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৬ অপরাহ্ন
Channel Cox add

একটি ব্রিজের অভাবে দুর্ভোগ এলাকাবাসীর

সংবাদদাতা
আপডেট : বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯

মিছবাহ উদ্দিন :
কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও চাঁন্দেরঘোনা খালের উপর একটি ব্রিজ নির্মাণ না হওয়ায় যাতায়াতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসীকে নানা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বছরের পর বছর অত্র এলাকার জনগণ চাঁন্দেরঘোনা পূর্বপাড়া (অছিন্যা মুরা) যাওয়ার একমাত্র রাস্তায় খালের উপর ব্রিজ নির্মাণের দাবি করে আসলেও তা উপেক্ষিত রয়ে গেছে। যার ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও হতাশা রয়েছে। শুকনো মৌসুমে মারাত্মক দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে কাঠের সাঁকো দিয়ে পারাপার করলেও ও বর্ষা মৌসুমে ঢলের পাণিতে ভেসে যায় সাঁকোটি। ফলে দূর্ভোগ পোহাতে হয় স্কুল-কলেজ ও বিদ্যালয়ের ছোট ছোট শিক্ষার্থীসহ এখানকার বাসিন্দারদের।

এদিকে প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে কোনাপাড়া দিয়ে যাওয়ার রাস্তাটি সুইচ গেইট এলাকায় ঢলের পানিতে দীর্ঘদিন ভাঙ্গা অবস্থায় পড়ে থাকলেও সংস্কারে এগিয়ে আসেনি কেউ। যার ফলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঈদগাঁও বাজারে আসতে হচ্ছে এলাকাবাসীদের।

এই ব্রিজ নির্মাণ হলে পুরো এলাকার হাজার হাজার সাধারণ মানুষের চলাচলের সুবিধা হতো। এছাড়াও স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীসহ অত্র এলাকার কৃষকদের উৎপাদিত শাক-সবজি সহ কৃষি পণ্য সহজে স্থানীয় বাজারের চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে পরিবহনের সুবিধা হতো।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ইতিপূর্বে কাঠের সাঁকো দিয়ে পারাপারের সময় প্রায়ই ছাত্র-ছাত্রীদের নানা দুর্ঘটনা ঘটেছে। তাই সরকারের কাছে এলাকাবাসীর দাবি অচিরেই যেন এই ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা আমানুল্লাহ আমান বলেন, প্রার্থীরা নির্বাচন আসলে এ ব্রিজটি করে দেওয়ার অজুহাতে ভোট চাইলেও নির্বাচিত হওয়ার পর আর কোন খোঁজখবর রাখেনা। ফলে একই অবস্থায় রয়ে যায় ব্রিজের নির্মাণ কাজ। তাই আগামীতে কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেবে জনগণ।
তিনি আরো বলেন, সরকারের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ধরে রাখতে প্রত্যন্ত অঞ্চলের এই ব্রিজটি করে দেওয়া একান্ত প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় মহিলা মেম্বার জান্নাতুল ফেরদৌসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, চাঁন্দেরঘোনা খালের উপর একটি ব্রিজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ ব্যপারে ইতিমধ্যে ঈদগাহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে যোগাযোগ করে আসছি। আশা করি খুব তাড়াতাড়ি একটি ব্রিজ টেন্ডার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 2 =

আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ