কগ্নিকান্ড এখন সাগরতীরে সন্তান রক্ষা পেলেও সম্পদ রক্ষা হয়নি বাড়ি মালিকের

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:২৫ PM, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৯

মোঃ কাইছার হামিদ, মহেশখালীঃ
গভীর রাতে সব সদস্যদের নিয়ে ঘুমন্ত বাড়ীতে হঠাৎ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় স্ত্রী ও ৫ সন্তানকে জীবনের ঝুকি নিয়ে বাঁচিয়ে রক্ষা করতে পারলেও রক্ষা করতে পারেনি নগদ ৩ লাখ টাকা, ৩ ভরি স্বর্ণালংকারসহ ঘরের বিপুল পরিমান অাসবাবপত্র। পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে পুরো ঘরটি। ১৭ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১ টায় মহেশখালী উপজেলার নদী ও সাগর ঘেরা বিচ্ছিন্ন উপদ্বীপ ধলঘাটার শরইতলা সাইট পাড়ার আব্দুর রহমানের বাড়িতে অগ্নিকান্ডের এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, ওই সময় আব্দুর রহমান ও তার স্ত্রী ও ৫ সন্তান নিয়ে যখন শীতের কুয়াশা ভরা সবাই মিলে আরামে ঘুমাচ্ছিলেন ঠিক তখনই বাড়ীর রান্না ঘরের চুলা থেকে অাগুনের সুত্র পাত হয়ে তা মুহুর্তে ছড়িয়ে পড়ে ঘরের চালে। অাগুন বিস্তৃতি লাভ করে তাদের শরীরে আগুনের উষ্ণতা বুঝতে পেরে ঘুম থেকে চমকে উঠে তারা। তৎক্ষণে অাগুনের লেলিহান শিখা তাদের ঘিরে ফেলেছে। তিনি সাথে সাথে স্ত্রী ও ৫ সন্তানকে নিয়ে জীবণের ঝুকি নিয়ে জান বাচতে অাগুনের উপর দিয়ে ঝাপিয়ে পড়ে স্ত্রী সন্তানকে বাচাতে পারলেও রক্ষা করতে পারেনি বাড়ীতে থাকা নগদ ৩ লক্ষ টাকা ৩ ভরি স্বর্ণালংকার সহ ঘরের বিপুল পরিমান অাসবাবপত্র। সব কিছু পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে অাশে পাশের শত শত সাধারণ লোকজন এগিয়ে এলেও ধলঘাটায় কোন ফায়ার সার্ভিস না থাকায় অাগুন নেভানো সম্ভব হয়নি। এ সময় ধলঘাটার ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসান নিজে এসেও আগুণ নেভানোর চেষ্টা করে। পরে চেয়ারম্যান ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে শান্তনাসহকারে তাদের পাশে দাড়িয়ে ২ বস্তা চাউল, তেল ও ডালসহ শুকনো খাবার দিয়ে তাৎক্ষনিক সহায়তা করেন।

আপনার মতামত লিখুন :