মাতারবাড়ীতে বলির ও সৈকত পাড়ার সড়ক পরির্দশনে গেলেন চেয়ারম্যান মোঃ উল্লাহ

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:১৭ AM, ১১ জানুয়ারী ২০২০

এ.এম হোবাইব সজীব,মহেশখালীঃ

‘আমাদের অনেক দিনের দাবি পূরণ হয়েছে। মাতারবাড়ীর বলির ও সৈকত পাড়ার সড়কটি নির্মিত হওয়ায় মাতারবাড়ী-মহেশখালী সড়কে গাড়ী চলবে নির্বিঘ্র। আমরা এখন খেতে উৎপাদিত লবণ সরাসরি ট্রাকে করে শহরে পাঠাতে পারব। এতে পণ্যের দামও পাব।’ মাতারবাড়ীর লবণ চাষি নুরুল আমিনের কথায় ঝরে পড়ে উচ্ছ্বাস। উক্ত সড়কে ইট বসিয়ে নতুন সড়কটি হতে যাওয়ায় তাঁর মতো আর ও অনেক মানুষের জন্য সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা থেকে শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণীর-পেশার মানুষ ইটের সড়কটি পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।

সড়কটি নির্মাণের ফলে মাতারবাড়ী ৩ গ্রামের হাজার হাজার বাসিন্দারা যাতায়াতে সুবিধা পাবেন। পাশা-পাশি এসব এলাকার উৎপাদিত সবজি, মাছ ও লবণ এখন থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহের কাজটি সহজ হবে। মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার মোঃ উল্লাহ কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী এমনটা মনে করেন সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী। উন্নয়নকার্য চলছে ইউনিয়নের গ্রামীণ সড়কের বিভিন্ন অলি-গলিতে। স্থানিয় বলির পাড়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ বাহাদুর (৫০) জানিয়েছেন উক্ত জনপ্রতিনিধি প্রথমবার নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে যে উন্নয়নের চমক দেখাচ্ছেন বিগত স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও এত উন্নয়ন হয়নি আমাদের মাতারবাড়ীতে।

৯ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার (বিকালে) স্থানীয় লোকজনকে সাথে নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার মোঃ উল্লাহ বলির পাড়া ও সৈকত সড়কটি পরির্দশন করেছেন । জানা যায়, ইউনিয়নের বলির পাড়া ও সৈকত পাড়ার সড়কটি দিয়ে হাজারো অধিক পরিবারের লোকজন চলাচল করলেও বিগত ২৫ বছর ধরে তৎকালিন কোন জনপ্রতিনিধি উক্ত সড়কটি মেরামত হাত দেয়নি। এ কারণে সড়কটির দৈন্যদশায় পরিনত হয়েছে। এতে যাতায়াতকারী কয়েক হাজার নারী-পুরুষ ও স্কুল, মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী সহ সাধারন পথচারী সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। এই বেহাল সড়কটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নজরে আসলে তিনি সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহন করেন। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের তত্বাবধানে ৫৭ লাখ টাকা ব্যয়ে উক্ত সড়কের নিমার্ণ কাজ চলতেছে।

স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল বারেক মুঠোফোনে বলেন, দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি ইটের সড়কটি নির্মিত হওয়ায় আমরা খুশি। এ জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যানকে এই এলাকার মানুষ স্মরণ রাখবে।

মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার মোঃ উল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, সরকার কর্তৃক ইউনিয়ন পরিষদে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়নের বাজেট থেকে জনগণের দুর্দশা লাগবের জন্য সড়কটি দৃষ্টিনন্দনভাবে করা হচ্ছে । তার পরও সরকারী বাজেটের পাশাপাশি এলাকার দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে আমার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে দিয়ে প্রতিটি সড়কে ড্রেইন ও গাইড ওয়ালসহ টেকসই ভাবে সড়কের কাজ সম্পন্ন করে যাচ্ছি। সড়ক সংস্কার কাজে নিয়োজিত শ্রমিক ও মিস্ত্রীরা যাতে কোন ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি করতে না পারে সে জন্য আমি নিজেই সার্বক্ষণিক তদারকি করে যাচ্ছি ।

আপনার মতামত লিখুন :