ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় কারাভোগ খরুলিয়া বাজারের নৈশপ্রহরীর

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:৩০ PM, ১৯ মার্চ ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক,
ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় প্রায় এক মাস কারাভোগ করলেন কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা খরুলিয়া বাজারের নৈশপ্রহরী আব্দুর রশিদ (৩৭)। তিনি ইউনিয়নের পূর্ব ঘাটপাড়ার মৃত আলী মিয়ার ছেলে। একটি চুরি মামলায় আসামী বানিয়ে তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছিল। মাসখানেক কারাবাসের এক সপ্তাহ আগে জামিনে মুক্তি পান তিনি।
এর আগে আব্দুর রশিদসহ তিনজনের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগে মামলা দায়ের করেন খরুলিয়া মাস্টার পাড়ার মৃত আবু বক্কর ছিদ্দিকের ছেলে আসহাব উদ্দিন। যার থানা মামলা নং- ৩৪/১৪৮।
ভুক্তভোগী আব্দুর রশিদ বলেন, ‘গত ২৮ জানুয়ারী ভোরে দায়িত্ব পালনকালে আসহাব উদ্দিনের দোকানের তালা খোলা অবস্থায় দেখতে পাই। প্রাথমিকভাবে মনে করেছি, তালা খোলা রেখে দোকান মালিক নামাজ পড়তে গেছে। অনেক্ষণ অপেক্ষার পরও কেউ না আসায় বাড়িতে গিয়ে আসহাব উদ্দিনের মাকে ঘটনা অবগত করি। তারপর কি হয়েছে জানি না।
দুইদিন আনিসুল কবির ও জহির উদ্দিন নামক দুইজনকে এ ঘটনায় আটক করে। সাথে আমাকেও বাজারের পাহাদার হিসেবে পুলিশ ভ্যানে তুলে থানায় নিয়ে যায়। ঘটনার সাক্ষি হিসেবে থানায় নিয়েছে মনে করলেও পরে দেখি চুরির মামলার আসামী দেখিয়ে আমাকেও কারাগারে প্রেরণ করা হয়।’
আব্দুর রশিদ নিজেকে নির্দোষ দাবী করে বলেন, ঘটনা কে করেছে, কিভাবে হয়েছে, কখন ঘটেছে-তা কিছুই জানি না। আমাকে কেন আসামী করা হলো, তাও রহস্যজনক। পাহারাদার হিসেবে একটি ঘটনা অবগত করানো কি অপরাধ?- প্রশ্ন রশিদের।
নৈশপ্রহরী আব্দুল রশিদ বলেন, আমি সামান্য বেতনের নৈশপ্রহরী। সংসার চালাতে কষ্ট হয়ে যায়। মামলা চালানোর টাকা পয়সা কোথায় পাব? ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায় বিচার কামনা করছি।
ঘটনার প্রসঙ্গে বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য মো. আব্দুর রশিদ বলেন, নৈশপ্রহরী হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে আব্দুর রশিদের কোন অবহেলা দেখি নি। সে পরিশ্রমী, সৎ ও নিষ্টাবান ব্যক্তি। চুরি করবে বলে মনে হয় না। ঘটনার সুষ্টু তদন্ত করা দরকার।
ইউনিয়নের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য সাজেদা বেগম বলেন, ‘আব্দুর রশিদ অত্যন্ত সহজ সরল মানুষ। দিনমজুরী করে খায়। পাশাপাশি খরুলিয়া বাজারের নৈশপ্রহরী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে। কোনদিন তার বদনাম শোনা যায় নি। দোকান চুরির ঘটনায় তাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ফাসানো হয়েছে মনে হয়।’
সমাজ কমিটির সভাপতি আমিনুল হক বলেন, ‘এলাকার হতদরিদ্র মানুষ হিসেবে আব্দুল রশিদকে বাজারের নৈশপ্রহরীর দায়িত্ব দেয়া হয়। সহজ-সরল লোকটিকে চুরির মামলায় জড়ানো দুঃখজনক।’

আপনার মতামত লিখুন :