চকরিয়ায় নিরবে ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী দিয়ে যাচ্ছেন তারুণ্যের প্রতীক খলিল উল্লাহ চৌধুরী | সি কক্স নিউজ

Channel Cox.ComChannel Cox.Com
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:১১ AM, ১০ মে ২০২০

মোঃ নাজমুল সাঈদ সোহেল,চকরিয়া:

চলমান করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রভাবে চকরিয়া উপজেলায় অঘোষিত ভাবে চলছে লকডাউন। টানা লগডাউন ও পবিত্র মাহে রমজানে করোনার দুর্যোগ সময়ে খেটে খাওয়া মানুষের কাজকর্ম বন্ধ রয়েছে। সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে বসে সময় কাটাচ্ছেন তারা। যার কারণে অসহায় মানুষগুলো পবিত্র মাহে রমজান মাসে পড়েছে আরো চরম ভাবে আর্থিক সংকটে।

কক্সবাজারেরর চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের কৃতি সন্তান চকরিয়া পৌর শহরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব সালেহ আহমদ সওদাগরের সুযোগ্যপুত্র, মাতামুহুরী সাংগঠনিক থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক সাবেক সফল ছাত্র যুবনেতা তরুণ জননেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী। পবিত্র রমজান মাসে ও জাতির এ দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে মানবিক সহায়তার হাত বাড়িয়ে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে গরিব, অসহায়, এতিম, দুস্থ ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে নিরবে ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছেন।

তিনি দেশের চলমান করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে ও পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডের বিভিন্ন পাড়ায় এবং পৌরশহরের বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের কর্মহীন হয়ে থাকা দিনমজুর, অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে নিত্যদিন নিজেই ইফতার সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন তরুণ জননেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী। ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণের মধ্যে রয়েছে প্রতি প্যাকেটে রয়েছে চাল, চনা, তৈল, পিয়াজ, চিনি, ডাল সেমাই ও খেজুর।

ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মাতামুহুরী সাংগঠনিক থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক তরুণ জননেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী এ প্রতিবেদককে বলেন, চকরিয়ায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বিস্তার রোধে লগডাউন হওয়ার পরে ও পবিত্র মাহে রমজানের শুরু থেকে ফটোসেশন ব্যতিরেখে নিরবে দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা ও উপহার হিসেবে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছি। যা ধারাবাহিকভাবে ইনশাআল্লাহ চলমান রয়েছে। এলাকার যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় এবং বিপদ আপদে অতীতেও জনগণের পাশে থেকেছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো।

তাছাড়া সরকারি নির্দেশনা মেনে গ্রাম পর্যায়ে গৃহবন্দী হয়ে থাকা গরিব, অসহায়, এতিম, দুস্থ ও দরিদ্র পরিবারের অবস্থা দেখে আল্লাহকে সন্তুষ্টির জন্য পবিত্র মাহে রমজান মাসে আমার এ উদ্যোগ। নিজের বিবেকের তাড়নায় ও এলাকার সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে জাতীয় এ মহামারীতে এলাকার কর্মহীন, দিনমজুর, অসহায় এবং সুবিধা বঞ্চিত মানুষের পাশে এসে দাঁড়ানো নৈতিক দ্বায়িত্ব বলে মনে করি।

তিনি আরো বলেন, আগামীতে আরো বৃহত্তর পরিসরে যেন মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারি তার জন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করছি। পাশাপাশি এই দুর্যোগ মোকাবেলায় এলাকার বৃত্তবানদেরও দরিদ্রদের পাশে থাকার আহবান জানিয়ে সকল সহযোগিতাও কামনা করেন তারুণ্যের প্রতীক, মানবতার অগ্রদূত ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তরুণ জননেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী।

আপনার মতামত লিখুন :