• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন

চকরিয়া জমজম হাসপাতাল থেকে ভূয়া ডাক্তার আটক

নিউজ রুম / ২০ ভিউ টাইম
আপডেট : বুধবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২২

কক্সবাজারের চকরিয়ায় জমজম হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা প্রদানের সময় হুমায়ুন কবির (৩৫) নামে এক ভুয়া চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় ওই ভুয়া চিকিৎসককে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।

আজ বুধবার (১৬ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে জামায়াত নিয়ন্ত্রিত চকরিয়া জমজম হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ভুয়া চিকিৎসক মুন্সিগঞ্জ জেলার টরকী ইসলামপুর এলাকার মোহাম্মদ দিদারুল আলমের ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক রাহাত উজ্জামান।

তিনি বলেন, অভিজ্ঞ চিকিৎসক সেঁজে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত সেবাপ্রার্থীদের সাথে প্রতারণা করে যাচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চকরিয়া জমজম হাসপাতালে অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে হুমায়ুন কবিরকে আটক করে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ডিগ্রি না থাকলেও সার্জন হিসেবে (লিভার, পরিপাকতন্ত্র, ডায়াবেটিস ও মেডিসিন) বিশেষজ্ঞ পরিচয় দিয়ে রোগী দেখা ও প্রতারণামূলক বিজ্ঞাপন ব্যবহার করায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯-এর ৪৪ ধারায় তাকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছে। ওই ভুয়া চিকিৎসক মো: হুমায়ুন কবির দীর্ঘদিন থেকে অসুস্থ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছেন। তার ভিজিটিং কার্ডে উচ্চ ডিগ্রি ব্যবহার করলেও অভিযান চলাকালে তিনি কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেননি বলেও জানান তিনি। চকরিয়ায় জনস্বার্থে এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আটককৃত ভূয়া ডাক্তারের বিরুদ্ধে ২০০৯ এর ৫২ ও ৫৩ ধারা অনুযায়ী একটি মামলা দায়ের করেন এবং কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ